1. admin@sathikkhabor.com : JbSknUo :
  2. 2015khokanctg@gmail.com : Rajib Khokan : Rajib Khokan
  3. ratanbarua67@gmail.com : Ratan Barua : Ratan Barua
  4. baruasangita145@gmail.com : Sangita Barua : Sangita Barua
বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ০৫:০৬ পূর্বাহ্ন

শ্রমজীবি ও বস্তিবাসী মানুষের কল্যাণে কাজ করছে সরকার – আ.জ.ম নাছির উদ্দীন

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
  • ৩২৬ Time View

সঠিক খবর ডেস্ক : চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও চসিক সাবেক মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দীন বলছেন, শ্রমজীবি ও বস্তিবাসী মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার। যার সুফল ইতিমধ্যে অসহায় বস্তিবাসীরা পাচ্ছেন। বিটাভূমিহীনদের জন্য আশ্রয়ন প্রকল্প। বস্তিবাসীদের জন্য সল্প ও দীর্ঘ কিস্তিতে শহরে পূণবাসন প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা।

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও শহীদ দিবস উপলক্ষে শুক্রবার বিকেলে নগরীর কোতোয়ালী থানাধীন দোস্ত বিল্ডিং চত্ত্বরে বাস্তুহারা বস্তিবাসী শ্রমজীবী সমবায় সমিতি লিঃ এর উদ্যোগে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক বাবু স্বপন বিশ্বাসের সঞ্চালনায় এবং চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সভাপতি আবু আহমদের সভাপতিত্বে এতে প্রধান বক্তা ছিলেন, জাতীয় শ্রমিকলীগ চট্টগ্রাম মহানগরের ভাপ্রাপ্ত সভাপতি ও ছিন্নমূল সমন্বয় সংগ্রাম পরিষদের বাস্তুহারা বস্তিবাসী শ্রমজীবী সমবায় সমিতি লিঃ এর সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিব।

সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের উপদেষ্টা ডি কে দাশ মামুন, চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবি সমিতির বিজ্ঞ আইনজীবি শফিকুল কবির বিজন, রউফাবাদ ইউনিট আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন লিটন, বাকলিয়া বাস্তুহারা সমবায় সমিতির সাবেক সভাপতি মো: জসীম উদ্দিন, পৌর জহুর মার্কেট দর্জি শ্রমিকলীগের সভাপতি কাঞ্চন দাশ, জাতীয় শ্রমিকলীগ চট্টগ্রাম মহানগরের সহ-সভাপতি কামাল উদ্দীন, রেলওয়ে শ্রমিক লীগের সাবেক নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ মোতালেব, চট্টগ্রাম অটোটেম্পু-অটোরিক্সা শ্রমিকলীগের সংগ্রামী সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম খোকন, বাংলাদেশ অটোটেম্পু-অটোরিকশা শ্রমিকলীগ চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সভাপতি ওসমান গণি, জাতীয় শ্রমিকলীগ কোতোয়ালি থানা শাখার সভাপতি আব্দুল হান্নান ও সাধারণ সম্পাদক আক্তার হোসেন, পৌর জহুর মার্কেট দোকান কর্মচারী সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি আশীষ কুমার চৌধুরী, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কতৃপক্ষ কর্মচারীলীগের সহ-সভাপতি গোলাম আকবর, কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন ঠিকাদার শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি প্রশান্ত কুমার বড়ুয়া, বাংলাদেশ নির্মাণ শ্রমিকলীগ চট্টগ্রাম জেলার সভাপতি জাবেদুল আলম, বায়েজিদ থানা শ্রমিকলীগের সভাপতি কামাল উদ্দীন, চট্টগ্রাম মহানগর সড়ক পরিবহন শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক কলিম শেখ, বাকলিয়া থানা শ্রমিকলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইউসুফ, চান্দগাঁও থানা শ্রমিকলীগের সভাপতি রুহুল আমীন, চট্টগ্রাম মহানগর ছিন্নমূল সমন্বয় সংগ্রাম পরিষদের অর্থ সম্পাদক বজল আহমদ, গঙ্গাবাড়ী শাখার সাধারণ সম্পাদক তাহেরা বেগম, গোয়ছি বাগান শাখার সভাপতি ডলি রানী শীল, সংগঠনের সদরঘাট শাখার সভাপতি জাকেয়া বেগম, বন্দর টিলা শাখার সভাপতি কাবুন্নেছা, উত্তর হালিশহর শাখার সভাপতি কোহিনূর আক্তার, বাগমনিরাম শাখার সাধারণ সম্পাদক রোকেয়া বেগম, সহ-সভাপতি আয়েশা খাতুন, উত্তর কাট্টলী শ্রমজীবী সমবায় সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ ইউসুফ, সাগরিকা শিল্পাঞ্চল শাখার সভাপতি ইউসুফ মোল্লা ও সাধারণ সম্পাদক যীশু এবং রাহাত্তারপুল শাখার সভাপতি মাস্টার অসীম প্রমুখ।

প্রধান অতিথি বক্তব্য তিনি আরো বলেন, শেখ হাসিনার সরকার সবসময় মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনে কাজ করছেন। এই সরকার টানা ক্ষমতায় থাকার কারণে দারিদ্রতার হার অনেক কমে গেছে। প্রধান অতিথি ষাটোর্ধ্ব মানুষের জন্য বিশেষ পেনশন স্কীম চালু করার নির্দেশ প্রদান করেছেন। তাই ২০২৩ সালের নির্বাচনে এই সরকারকে পুনরায় নির্বাচিত করে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যহত রাখতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। চট্টগ্রামের ছিন্নমূল বস্তিবাসীদের জন্য ফ্ল্যাট প্রকল্প নিয়ে প্রধানমন্ত্রী অবগত আছেন। সংগঠনের নেতৃবৃন্দের দূর্বলতার কারণে এই প্রকল্প বাস্তবায়নে বিলম্ব হয়েছে। এই সংগঠনের সূচনালগ্ন থেকেই আমি বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করে আসছি, আগামীতেও সহযোগীতা অব্যহত থাকবে।

তিনি আরো বলেন, পূনর্বাসন প্রকল্প বাস্তবায়নে নেতৃবৃন্দকে সততার সাথে কাজ করতে হবে। সততার দিকে হাবিবুর রহমান অনেক এগিয়ে, তাই এখন প্রকল্প বাস্তবায়নে আর তেমন বাধা নেই। প্রধান বক্তা তাঁর বক্তব্যে বলেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের বস্তিবাসী ও নিন্ম আয়ের মানুষকে বাসস্থানের ব্যবস্থা করেছেন।

চট্টগ্রাম মহানগরে এই প্রকল্পের আওতায় ১০ হাজার মানুষকে ফ্ল্যাট বরাদ্দের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ২৭০০ ফ্ল্যাট বাকলিয়া বাস্তুহারা এলাকায় এবং বাকীগুলো রেলের জায়গায় নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সাবেক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের হস্তক্ষেপে এই প্রকল্প দ্রুত বাস্তবায়ন হবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

সনদ্বীপনা কেন্দ্রীয় সংসদের শিল্পীদের পরিবেশনায় মহান একুশের স্মৃতি গাঁথা রচিত গান ও কবিতা আবৃত্তির মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019
Design Customized By:Our IT Provider