1. admin@sathikkhabor.com : JbSknUo :
  2. 2015khohanctg@gmail.com : Khokan Mazumder : Khokan Mazumder
  3. baruasangita145@gmail.com : Sangita Barua : Sangita Barua
শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০১:৫৩ পূর্বাহ্ন

বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে আইআইইউসি দেশ বিদেশে সুখ্যাতি অর্জন করেছে : আনোয়ারুল আজিম

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ১৩০ Time View

নিজস্ব প্রতিবেদক : আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রামের আগামী ১১ সেপ্টেম্বর ৫ম সমাবর্তন অনুষ্ঠান উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার

(৮ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২ চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের বঙ্গবন্ধু হলে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রামের উপাচার্য প্রফেসর আনোয়ারুল আজিম আরিফ। এসময় তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম ১৯৯৫ সালের ১১ ফেব্রুয়ারী যাত্রা শুরু করে। বিগত ২৬ বছরে দেশের বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে অন্যতম সেরা বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে আইআইইউসি দেশ বিদেশে সুখ্যাতি অর্জন করেছে। নৈতিক ও আধুনিক শিক্ষার সমন্বয়ে যুগের চাহিদা অনুযায়ী দক্ষ মানব সম্পদ তৈরীতে আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম ইতোমধ্যে সফলতার স্বাক্ষর রেখেছে। তাই বৃহত্তর চট্টগ্রাম সহ দেশের সীমা ছাড়িয়ে বহির্বিশ্বেও এই বিশ্ববিদ্যালয় আস্থা অর্জনে সক্ষম হয়েছে আলহামদুলিল্লাহ। ২টি বিভাগ ও ৪৮ জন শিক্ষার্থী নিয়ে যাত্রা শুরু করা এই বিশ্ববিদ্যালয়ে এখন ১২ হাজার ছাত্রছাত্রী, ৬টি অনুষদের অধীনে ১৪টি) বিভাগে অধ্যয়ন করছে। আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রামে রয়েছে ৪২৫ জন উচ্চ ডিগ্রীধারী অভিজ্ঞ শিক্ষক শিক্ষিকা, ১৩০ জন দক্ষ কর্মকর্তা ও ২২৭ জন কর্মচারী। চট্টগ্রাম শহর থেকে ২২ কিলোমিটার দূরত্বে সীতাকুন্ড উপজেলার কুমিরার পাহাড় ও সাগরের কোল ঘেঁষে প্রায় ৫০ একর সবুজ ক্যাম্পাস নিয়ে প্রতিষ্ঠিত আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে অন্যতম স্বতন্ত্র বৈশিষ্টের অধিকারী।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও বলেন, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষামন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মতে আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম এর বোর্ড অব ট্রাস্টিজ পুনর্গঠিত হয়েছে। দেশ বরেণ্য ইসলামিক স্কলার, জাতীয় সংসদ সদস্য প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দীন নদভীর নেতৃত্বে নতুন বোর্ড অব ট্রাষ্টিজে স্থান পেয়েছে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, সাংবাদিক মুক্তিযোদ্ধা, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, রাজনৈতিক ও সামাজিক নেতৃবৃন্দ ও অভিজ্ঞ ব্যক্তিবর্গ। ২০২১ সালের ৮ মার্চ পুনর্গঠিত বিএটি আনুষ্ঠানিক সভার মাধ্যমে যাত্রা শুরু করে। প্রথম সভাতেই বোর্ড অব ট্রাষ্টিজ দৃঢ়তার সাথে ঘোষণা করেন যে, আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম প্রতিষ্ঠার প্রকৃত উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশ ও জাতির কল্যাণ ও অগ্রগতিতে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখা হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে সমুন্নত রেখে জাতির জনকের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে শিক্ষাখাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। পুনর্গঠিত বিওটির পরামর্শক্রমে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন স্বল্পসময়ে বেশ কিছু যুগান্তকারী পদক্ষেপও গ্রহণ করেছে এবং আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম ইতোমধ্যে বেশ কিছু মর্যাদাপূর্ণ সংস্থার সদস্যপদ লাভ করেছে।

তিনি জানান, আগামী ১১ সেপ্টেম্বর সকাল ১০ টায় আইআইইউসি’র নিজস্ব ক্যাম্পাসে ৫ম সমাবর্তন অনুষ্ঠান
অনুষ্ঠিত হবে। এতে আইআইইউসির মান্যবর চ্যান্সেলর ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতি মো: আব্দুল হামিদের সময় সম্মতিতে তার প্রতিনিধি হিসেবে এ সমাবর্তন অনুষ্ঠানে সভাপতি হিসেবে উপস্থিত থেকে গ্র্যাজুয়েটদের পদক ও সনদ বিতরণ করবেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, বিশেষ অতিখি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সম্মানিত সদস্য প্রফেসর ড. বিশ্বজিত চন্দ, সমাবর্তন বক্তৃতা প্রদান করবেন বিশিষ্ট প্রকৌশলী ও পরিবেশ বিশেষজ্ঞ ড. আইনুন নিশাত, ইমেরিটাস অধ্যাপক ও সাবেক ভিসি, ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়। বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও উপস্থিত থাকবেন আইআইইউসি বোর্ড অব ট্রাষ্টিজের চেয়ারম্যান প্রসেফর ড. আবু রেজা মুহাম্মাদ নেজামুদ্দীন নদভী। ইতিমধ্যেই ৫ম সমাবর্তন উপলক্ষে সবধরনের প্রতি সম্পন্ন হয়েছে। আইআইইউসি গ্রাজুয়েটদের মধ্যে এ বর্ণাঢ্য আয়োজন নিয়ে ব্যাপক উচ্ছ্বাস সৃষ্টি হয়েছে। আশা করি সকলের সহযোগিতায় আমরা একটি সফল সমাবর্তন অনুষ্ঠান সম্পন্ন করতে পারব।

এসময় সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন, আইআইইউসি সদস্য, বোর্ড অফ ট্রাস্টিজ ও মিডিয়া, প্রেস, পাবলিকেশন এন্ড এডভারটাইম্যান্ট কমিটির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ খালেদ মাহমুদ, সদস্য, বোর্ড অফ ট্রাস্টিজ ও
ফিন্যান্স কমিটির চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার ড. রশিদ আহমেদ চৌধুরী, সদস্য, বোর্ড অফ ট্রাস্টিজ ও ফিমেল একাডেমিক জোনের চেয়ারম্যান মিসেস রিজিয়া সুলতানা চৌধুরী, উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মছরুরুল মওলা, ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির ও রেজিস্ট্রার এ এফ এম আক্তারুজ্জামান কায়সার।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019
Design Customized By:Our IT Provider